https://www.totobangla.net/search/label/Android

AdSense Alternative: গুগল এডসেন্স ছাড়াই ব্লগ থেকে ইনকাম করুন

Google AdSense নেই? কিভাবে গুগল এডসেন্স ছাড়াই ইনকাম করবেন? আয় করতে পারবেন দুটি উপায়ে: ১. এড নেটওয়ার্ক ও ২. এফিলিয়েট করার মাধ্যমে।

আপনি কি গুগল এডসেন্স ছাড়াই ইনকাম করতে চান ?
কিংবা গুগল এডসেন্স ব্যবহারের পাশাপাশি আরও  অন্যান্য এড নেটওয়ার্ক থেকে ইনকাম করার কথা ভাবছেন।তাহলে আপনাকে গুগল AdSense Alternative  উপায়গুলো খুজে নিতে হবে।

Google AdSense কি?

আমরা সবাই জানি যে, Google AdSense একটি জনপ্রিয় এড নেটওয়ার্ক।কারন গুগল এডসেন্সের মতো High Quality Ads এবং বিশ্বাসী এড নেটওয়ার্ক আর দ্বিতীয়টি নেই।যদি আপনি এডসেন্স ব্যবহারকারী হয়ে থাকেন।তাহলে অবশ্যই এ বিষয়টি সম্পর্কে জেনে থাকবেন।
সেজন্য গুগল তাদের এড ব্যবহারকারীদের ক্ষেএেও প্রদান করেছেন বিভিন্ন বিধিনিষেধ।তাদের পলিসির সামান্য কিছু ভুলের কারনে অনেকের এডসেন্স ডিজেবল হয়ে যায়।তখন বেশ টেনশনে পড়তে হয় এডসেন্স ব্যবহারকারীদের।তখন সবার মনে প্রশ্ন জাগে, কিভাবে তারা এডসেন্স ছাড়াই ইনকাম করা যায়।

কোনো কারনে আপনার এডসেন্স একাউন্টটি ব্যান/ডিজেবল হয়ে গেলে আপনি কিভাবে ইনকাম করতে পারবেন।আজকে আমরা সে বিষয় সম্পর্কে জানবো।
প্রায় অধিকাংশ ব্লগার গুগল এডসেন্সকেই ইনকামের মূল কর্নধার হিসেবে ধরে নেয়। কারন এডসেন্স ব্যবহার করলে বিশেষ সুবিধা পাওয়া যায়,
  • এটি ওয়েবসাইটে ব্যবহার করা অনেক সহজ।
  • এডস কোয়ালিটি সম্পর্কে তেমন ভাবতে হয়না।
  • তাদের দেয়া এডসগুলোকে আপনার কোনো প্রকার মোডিফাই করতে হয় না।
  • সবচেয়ে বড় সুবিধা হলো।পেমেন্টের দিক থেকে গুগল এডসেন্স সবথেকে বিশ্বাসী একটি এড নেটওয়ার্ক।তা্ই আপনার পেমেন্ট নিয়ে চিন্তা করতে হবে না।
গুগল যেমন তাদের ব্যবহারকারীদের বিশেষ সুবিধা দিয়ে থাকে।তেমনি পাবলিশারদের প্রতি যে এডসেন্স প্রাইভেসি পলিসি দেয়।আপনি তাদের পলিসির একটু এদিক-ওদিক করে ফেলেন।তাহলে তারা খুব যত্ন সহকারে ”Your AdSense is diseable” মেসেজটি দিতে একটুও দেরী করে না।

এডসেন্স ডিজেবল হওয়ার বেশ কিছু কারন আছে।যেমন,
  • যদি আপনার ব্লগে আর্টিকেল  মানসম্মত না হয়।
  • অন্যার লেখা আর্টিকেল কপি করে পোষ্ট করা।
  • ব্লগে অবৈধ পন্যর প্রচার করা।
  • নিজেই নিজের এডে ক্লিক করা।
  • অতিরিক্ত ইনকামের আশায়, বিভিন্ন কৌশল অবলম্বন করা।
  • ১৮+/কপি করা আর্টিকেল ব্লগে পোষ্ট করা সহো আরও অনেক কারন রয়েছে।
একজন এডসেন্স ব্যবহারকারী হিসেবে এই বিষয়গুলো জানা অত্যন্ত জরুরী।কারন আজকের দিনে এডসেন্স এপ্রুভাল পাওয়াটা বেশ কঠিন হয়ে পড়েছে।আর কষ্টে অর্জিত সেই এডসেন্স কোনো কারনে ডিজেবল হওয়ার ব্যাথাটা নিশ্চই কম বেদনার নয়।
তো এবার আলোচনা করা যাক, কিভাবে গুগল এডসেন্স ছাড়াই আপনার ব্লগ থেকে ইনকাম করতে পারবেন।
adsense alternatives
adsense-alternatives

কিভাবে গুগল এডসেন্স ছাড়াই ইনকাম করবেন?

How To Earn Money Without Google AdSense?

শুরুতে আপনাদের কিছু কথা বলি।যখন আমি আমার প্রথম ব্লগিং শুরু করি।তখন কিভাবে ব্লগ থেকে ইনকাম করা যায়।সে সম্পর্কে কোনো প্রকার ধারনা ছিলো না।আমার আগে থেকেই লেখালেখি করার অভ্যাস ছিলো।তাই না চাইলেও বিভিন্ন ফোরাম,সোশ্যাল প্ল্যাটফর্মগুলোতে লেখালেখি করতাম।

তারপর যখন জানতে পারি যে, গুগল এডসেন্সের সাহায্য ব্লগ মনিটাইজ করিয়ে ইনকাম করা যায়।তখন এডসেন্সের জন্য এপ্লাই করি।তবে মজার বিষয় হলো, সে সময় আজকের মতো প্রতিযোগীতা না থাকায়, খুব সহজেই আমার ব্লগটিকে মনিটাইজ করতে পেরেছিলাম।

তারপর আমার ব্লগের এডসেন্স থেকে বেশ ভালোই ইনকাম করছিলাম।তখন মনে হয়েছিলো, আমার লেখালেখির অভ্যাসকে কাজে লাগিয়ে যদি ইনকাম করা যায়।তাহলে সেটা তো মন্দ হবে না। তার ঠিক কয়েকবছর পরে জানতে পারলাম ”এফিলিয়েট মার্কেটিং” সম্পর্কে।

সবচেয়ে অবাক করার মতো বিষয় হলো, যখন আমি এফিলিয়েট মার্কেটিং শুরু করি।তখন দেখলাম, এডসেন্সের থেকে দ্বিগুন ইনকাম হওয়া শুরু করলো “এফিলিয়েট”  করে।তখন ইনকামের পরিমান দেখে বেশ অবাক হয়ে গেছিলাম।আর সেই থেকেই ব্লগিং করার অভ্যাসকে, নিজের পেশা হিসেবে নেয়ার সিন্ধান্ত নিয়েছি।

তারপর থেকেই এডসেন্স ইনকাম থেকে মনোযোগ সরিয়ে বিভিন্ন এড নেটওয়ার্ক এবং এফিলিয়েট মার্কেটারের সাথে যোগাযোগ করতে শুরু করি।কারন বাকি এড নেট্ওয়ার্ক গুলো এডসেন্সের থেকে দ্বিগুন ইনকামে সহায়তা করতো।পাশাপাশি তাদের এড নেটওয়ার্ক ছাড়াও বিভিন্ন এফিলিয়েট মার্কেটের সাহায্য এতোটাই ইনকাম হতে শুরু করলো।যা এডসেন্স থেকে ইনকামের তিনগুন সমান।


  • 💡Pro Tips: সেজন্য আপনাকে একটা কথা বলবো, একজন নতুন ব্লগার,তার ব্লগ সাইটকে এডসেন্স এপ্রুভালের  জন্য যতটুকু রিসার্চ করে।ঠিক ততোটুকু রিসার্চ যদি এফিলিয়েট কিংবা অন্যান্য এড নেটওয়ার্ক নিয়ে রিসার্চ করে।তাহলে সেই ব্যক্তি খুব কম সময়ের মধ্যেই আপনার অনলাইনে সফল হতে পারবে। আর সেই  সফল হওয়ার মোটিভেশনাল গল্পগুলো অন্যদের সাথে শেয়ার করতে পারবে।


যেহুতু আপনি আজকের এই আর্টিকেলটি পড়ে আপনি সময় নষ্ট করছেন।তাই আমি আপনাকে হতাশ করবো না।আজকে সেই সব এড নেটওয়ার্ক সম্পর্কে কথা বলবো।যে এড নেটওয়ার্কের এড আপনার ব্লগার সাইটে ব্যবহার করার মাধ্যমে।অনেক বেশি পরিমানে ইনকাম করতে পারবেন।

তার সাথে আজকের দিনে সবচেয়ে জনপ্রিয় কিছু এফিলিয়েট মার্কেটারদের সাথে পরিচয় করিয়ে দিবো।যাদের এফিলিয়েট প্রোগ্রামে জয়েন করে।গুগল এডসেন্সের থেকে দুইগুন/তিনগুন বা তারও বেশি ইনকাম করতে পারবেন।

এডসেন্স বিকল্প কিছু Ad Network Website List

আমরা সবাই ব্লগিংয়ের শুরুতে গুগল এডসেন্সকে ইনকামের প্রথম পন্থা হিসেবে নির্ধারন করি।কারন গুগল হলো গোটা বিশ্বের মধ্যে সবচেয়ে বিশ্বস্ত এড নেটওয়ার্ক।কিন্তু গুগলের মতো আরও অনেক এড নেটওয়ার্ক থাকলেও। সেগুলো এখনও অনেকের কাছে অজানা।যেমন,

1.Media.net                                                                                                                     

আপনি জানলে অবাক হবেন যে, Media.net এমন একটি নেটওয়ার্ক।অনেকের মতে এই এড নেটওয়ার্কটি গুগল এডসেন্সের থেকেও অনেক উন্নত।তাদের এই জনপ্রিয়তার কারনে বর্তমানে গোটা বিশ্বে এই এড নেটওয়ার্কটি ছড়িয়ে পড়েছে।আর বর্তমানে তাদের জনপ্রিয়তার কারনে বিশ্বব্যাপি ইউজারের সংখ্যাও দিন দিন বেড়েই চলেছে।
গুগলের মতোই এই এড নেটওয়ার্ক কে খুব সহজে ব্যবহার করতে পারবেন। এছাড়াও বেশ কিছু সুবিধা হলো,
  • ইন্টারফেস খুব সোজা।তাই ব্যবহার করতে তেমন সমস্যা হবে না।
  • তাদের এডগুলো রেন্সপন্সসিভ তথা, মোবাইল/কম্পিউটার/ট্যাবলেট ফ্রেন্ডলি
  • এডসেন্সের মতো সিপিসি/সিপিএম/সিটিআর এর সুবিধা পাবেন।
  • প্রত্যেক একাউন্টের জন্য রেভিনিউ চেক করার জন্য একটা ড্যাসবোর্ড পাবেন। 
যদি আপনার কখনও মনে হয় , গুগল আপনার ব্লগে ব্যয় করা পরিশ্রম অনুযায়ী প্রাপ্য ইনকাম করতে দিচ্ছে না।তাহলে আপনাকে মিডিয়া ডট নেট এর সাহায্য আপনার ব্লগকে মনিটাইজ করার পরামর্শ দিবো।যদি আপনি আপনার ব্লগকে এই নেটওয়ার্কে মনিটাইজ করাতে পারেন।তাহলে খুব ভালো মানের রেভিনিউ জেনারেট করতে পারবেন।

2. PropellerAds

সবচেয়ে বৃহৎ এবং অনেক পুরোনো এড নেটওয়ার্কের কথা আসলে শুরুতেই যে নামটি আসবে সেটা হলো, ”Propeller Ads”.যদি আপনি আজকে থেকে ২ কিংবা তার থেকে কয়েকবছর আগের পুরাতন ব্লগার হয়ে থাকেন।তাহলে এই এড নেটওয়ার্ক সম্পর্কে অবশ্যই জেনে থাকবেন।
সবচেয়ে মজার ব্যাপার হলো, আপনার যে কোনো ব্লগকে খুব সহজেই Propeller Ads নেটওয়ার্কের মাধ্যমে মনিটাইজ করে নিতে পারবেন।এখানে আপনার একটিমাএ একাউন্ট খুলে আপনার ব্লগকে সাবমিট করার কিছুক্ষনের মধ্যেই আপনার ব্লগকে মনিটাইজ করতে পারবেন।

ব্লগকে মনিটাইজ করার পর, আপনার ব্লগে Push Notification Ads এবং Banner Ads কোড পাবেন। তার সাথে একটি Real Time Dashboard  পাবেন।যেখান থেকে আপনার সাইটে ক্লিক হওয়া এডগুলোর রেভিনিউ সম্পর্কে সাথে সাথে ধারনা পেয়ে যাবেন।

3. Adversal

Adversal এমন একটি এড নেটওয়ার্ক।যার মাধ্যমে আপনি কয়েক মিনিটের মধ্যেই আপনার ব্লগকে মনিটাইজ করে নিতে পারবেন।অন্যান্য এড নেটওয়ার্কের মতো এই নেটওয়ার্কের ইন্টারফেস একদম সহজ।তবে আপনি যদি এই নেটওয়ার্কের সাহায্য ইনকাম করতে চান।তাহলে আপনার ব্লগে সর্বনিন্ম ৫০ হাজার ভিজিটর প্রতি মাসে থাকতে হবে।অন্যথায় এই নেটওয়ার্কে এপ্রুভাল পাওয়া সম্ভব না।

4. Monumetric

ধরুন, আপনি একটা নতুন ব্লগ ক্রিয়েট করেছেন।আপনি চাচ্ছেন শুরু থেকেই আপনার ব্লগের সাহায্য ইনকাম করতে।তাহলে আপনার জন্য উপযুক্ত এড নেটওয়ার্ক হবে, "Monumetric". এককথায় ব্লগিং করার শুরুতেই অনলাইন থেকে ইনকামের স্বাদ নেয়ার জন্য উপযোগী একটি এড নেটওয়ার্ক।

তাদের সিপিএম/সিপিসি/ইম্প্রেশন এর মাধ্যমে মোটামুটি ভালো মানের একটা ইনকাম জেনারেট করা সম্ভব।যা একজন নতুন ব্লগারকে আরও উৎসাহী করার জন্য যখেষ্ট।নতুনদের পাশাপাশি যারা পুরাতন ব্লগার  আছেন।তারাও এই এড নেটওয়ার্কটি ব্যবহার করে দেখতে পারেন।

5.YlliX

যদি আপনি গুগল এডসেন্সের মতো সেম রেভিনিউ জেনারেট করতে চান।তাহলে "Yllix" থেকে সবচেয়ে ভালো এবং বিশ্বস্ত পেমেন্ট নেটওয়ার্ক।

Banner Ads / Push Notification সহো বিভিন্ন সাইজের এড পাবেন নেটওয়ার্কে।পেমেন্ট মেথডের দিক থেকেও এই নেটওয়ার্ক যথেষ্ট ফ্রেন্ডলি।আপনি চাইলে দৈনিক পেমেন্ট কিংবা মাসিক পেমেন্ট নিতে পারবেন।ব্লগ মনিটাইজের পাশাপাশি আপনি রেফার করেও আপনার ইনকামকে বৃদ্ধি করতে পারবেন।

6. Evadav

ডেক্সটপ বা মোবাইলে ভিন্ন প্রকার এড যেমন,Native Ads / Video Ads / Slider Ads এর জন্য বেশ মানসম্মত এড নেটওয়ার্ক হলো, "Evadav".
আপনি যখন এই এড নেটওয়ার্কে আপনার ব্লগকে মনিটাইজ করবেন।ঠিক তখনই নিজেই নিজের রেফারেল হিসেবে ৫% রেভিনিউ জেনারেট করতে পারবেন।বিশ্বস্ততার সাথে পেমেন্ট মেথড প্রদান করাতে এই এড নেটওয়ার্কটি বর্তমানে বেশ জনপ্রিয়তা লাভ করছে।

7. Popcash

পূর্বে আলোচিত Propeller Ads এর মতো Popcash Ads Network টি বহুল জনপ্রিয়।এই এড নেটওয়ার্কটি বেশ জনপ্রিয়তা পাওয়ায়, তাদের নেটওয়ার্কে যুক্ত হতে বেশ কিছু গাইডলাইন মেনে চলতে হবে। যেমন, আপনার সাইটে মিনিমাম ৫০ হাজার মাসিক ভিজিটর থাকতে হবে।যদি আপনার এই সমপরিমান ভিজিটর থাকে তাহলে আপনার ব্লগকে সহজেই মনিটাইজ করতে পারবেন।

💡Tips: সবচেয়ে বড় সুবিধা হলো, আপনি সর্বনিন্ম ৫ ডলার হলেই পেমেন্ট নিতে পারবেন।

8. Popads

আমার ব্লগিং ক্যারিয়ারে আমার ব্লগকে সর্বপ্রথম এই এড নেটওয়ার্কের সাথে যুক্ত করেছিলাম।বর্তমানে বিশ্বের ৫০ টি দেশে এই নেটওয়ার্কটি বিস্তার লাভ করছে।অন্যান্যদের মতো সাইন আপ করার সাথে সাথে একটি ড্যাশবোর্ড পাবেন এই নেটওয়ার্কে।যেখানে আপনি আপনার ব্লগের রেভিনিউ সম্পর্কে পরিস্কার ধারনা পাবেন।নতুন ব্লগার হিসেবে ০ (শূন্য) ভিজিটরেও আপনি আপনার ব্লগকে মনিটাইজ করতে পারবেন।

9. She media

আপনার ব্লগে যদি মেয়ে কিংবা মহিলা ভিজিটর বেশি হয়ে থাকে।তাহলে আপনার জন্য "She Media" হবে  সবচেয়ে উপযুক্ত এড নেটওয়ার্ক।কারন এই নেটওয়ার্কটির সব এড মেয়েদের জন্য তৈরি করা।

10. Ad recover

বর্তমানে আমাদের ব্লগে যে ভিজিটর গুলো আসে।তাদের মধ্যে অনেকেই ব্রাউজারে এড ব্লকার ব্যবহার করে।যার দরুন ভিজিটর আসার পরেও আমরা আমাদের ইনকাম বাড়াতে পারিনা।কিন্তু এই এড নেটওয়ার্কের এড ব্যবহার করার পর এড ব্লকার ব্যবহার করলেও কোনো লাভ হবে না।কারন যেভাবেই হোক, ভিজিটরকে এই নেটওয়ার্কের এড প্রদর্শন করাবেই।

💡 Pro Tips: তবে বলে রাখা ভালো যে, বর্তমানে উক্ত এড নেটওয়ার্কগুলো তাদের পাবলিশারদের জন্য যেরকম কমিউনিটি গাইডলাইন দিয়েছে।আমি সেগুলোর উওর ভিওি করেই লিখছি।কিন্তু যেকোনো সময় তারা তাদের কমিউনিটি গাইডলাইন আপডেট করতে পারে।

যাক এতক্ষনে বিভিন্ন এড নেটওয়ার্কে মাধ্যমে কিভাবে গুগল এডসেন্স ছাড়াই ইনকাম করতে পারবেন।সে বিষয়ে পুরোপুরিভাবে জেনে গেছেন।

তবে আমি পোষ্টের শুরুতে আপনাদেরকে ”এফিলিয়েট মার্কেটি “ সম্পর্কে বলেছিলাম।আপনার জেনে রাখা ভালো, বর্তমানে বড় বড় ব্লগার তাদের ইনকামের মূল উৎস হিসেবে ”এফিলিয়েট মার্কেটিং”-কে সবচেয়ে বেশি প্রাধান্য দিচ্ছে।

Affiliate Marketing  কি?

আপনি তো জানেন, প্রযুক্তি আমাদের আবেগকে কেড়ে নিয়ে বেগ প্রদান করেছে।সেই বেগের কারনে বর্তমানের মানুষরাও হয়েছে অনেক আরামপ্রিয়।বর্তমানে সেই আরামপ্রিয়তাকে কেন্দ্র করে কেনা-কাটাতে সময় পার করা মানুষদের জন্য সবচেয়ে পছন্দের একটি প্ল্যাটফর্ম ”ই-কমার্স” বা ”ই-বিজনেস”।এসব অনলাইন প্ল্যাটফর্ম থেকে এখন আমরা চাইলেই ঘরে বসে যে কোনো পন্যর অর্ডার করে কিনতে পারছি।

এখন ধরে নিলাম, আপনি একজন ব্লগার।আপনার একটি ব্লগ সাইট কিংবা ওয়েবসাইট আছে।যেখানে মাসে প্রচুর ভিজিটর আসে।আপনি সেই সুযোগকে কাজে লাগিয়ে ঐসব ই কমার্স সাইটের পন্যগুলো যদি আপনার  মাধ্যমে প্রচার করে বিক্রি করে দিতে পারেন।তাহলে সেই ই কমার্স কোম্পানি থেকে আপনাকে কিছুটা কমিশন প্রদান করবে।

ধরুন, আপনি আপনার ব্লগের মাধ্যমে একটি ১০০০/-  পন্য বিক্রি করলেন।এবং পন্যভেদে সেই ইকমার্স কোম্পানি আপনাকে ২০০/- প্রদান করা হলো।এই ২০০/- কমিশনকে বলা যেতে পারে,এফিলিয়েট মার্কেটিং।কেউ কেউ আবার এটিকে ডিজিটাল মার্কেটিং ও বলে থাকে।

এডসেন্স বিকল্প হিসেবে এফিলিয়েট মার্কেটিং

যদি সামান্য একটি ব্লগে থেকে প্রচুর পরিমানে ইনকাম আসে।তাহলে সেটা তো বেশ ভালোই হয়,তাইনা? বর্তমান জনপ্রিয় ব্লগাররা তাদের ব্লগিং ক্যারিয়ারকে সফল করার জন্য সবাই এফিলিয়েট মার্কেটিংকে বেছে নিচ্ছে।কারন, এখানে কন্টেন্ট পাবলিশের কোনো চাপ নেই।সর্বোপরি কোনো প্রকার সমস্যা ছাড়াই আপনি আপনার ব্লগকে চালিয়ে যেতে পারবেন।

1. Share A Sale

"Share A Sale" তাদের অনলাইন বিজনেস আগামী ১৭ বছর ধরে করে আসছেন।তাই জনপ্রিয়তার দিক থেকে তাদের কোনো প্রকার কমতি নেই।তাদের কোম্পানিতে এফিলিয়েট করার জন্য অনেক রকমের পন্য পাবেন।যে পন্যগুলো বিক্রি করে দিতে পারলে, আপনি খুব সহজেই খুব ভালো মানের একটা ইনকাম জেনারেট করতে পারবেন।

আমাদের মতো ছোট-বড় সব ধরনের পাবলিশারদের জন্য ডিজিটাল পেমেন্ট মেথড আছে।আপনি চাইলে তাদের বৃহৎ ই-কমার্সে জয়েন করে যে কোনো পন্য বিক্রির মাধ্যমে আপনার ইনকামকে দ্বিগুন করতে পারবেন সহজেই।

2. Amazon Associates

প্রত্যেকটা এফিলিয়েট মার্কেটার এম্যাজনের বৃহৎ মার্কেটপ্লেস সম্পর্কে জেনে থাকবেন।বিশ্বের প্রায় অধিকাংশ দেশেই এই মার্কেটপ্লেসটি বিস্তার লাভ করছে।তাই পৃথিবীর যেকোনো দেশ থেকেই আপনি এম্যাজনে পন্য অর্ডার করতে পারবেন।

তথ্যসূএে জানা গেছে,খুব শীঘ্রই Amazon আমাদের বাংলাদেশেও আসবে তাদের বানিজ্যকে প্রসার করার জন্য।যদি বাংলাদেশে আসে,তাহলো তো আমাদের দেশি ব্লগারদের জন্য সেটা চান কপাল।

আপনি যদি এম্যাজন থেকে যেকোনো পন্য বিক্রি করতে পারেন। তাহলে এম্যাজন থেকে সর্বনিন্ম ১০% কমিশন থেকে  শুরু করে ৩০%-৪০% পর্যন্ত কমিশন পাবেন ।ডেলিভারি,পন্যর বাহুল্যতা এবং বিভিন্ন পেমেন্ট মেথড থাকায়।বেশিরভাগ এফিলিয়েট মার্কেটাররা ঝুকে পড়ছে এ্যামাজন এফিলিয়েট মার্কেটিং এ।

3. Host Gator

হোষ্টগেটর হলো, অনলাইনে বহুল জনপ্রিয় একটি ডোমেইন এবং হোস্টিং কোম্পানি।তবে যারা ছোট পাবলিশার কিংবা যাদের ব্লগ নতুন।তারা চাইলে খুব সহজেই এই কোম্পানির সাহায্য এফিলিয়েট মার্কেটিং করে ইনকামের স্বাদ নিতে পারবে।

সবচেয়ে মজার বিষয় হলো, হোষ্টগেটর তাদের এফিলিয়েট মার্কেটারদের অনেক বেশি রেভিনিউ প্রদান করে থাকে।কোনো কোনো সময় আপনি তাদের একটি ডোমেইন কিংবা একটি হোস্টিং বিক্রি করে দিতে পারলে ১০০ ডলার পর্যন্ত ইনকাম করতে পারবেন।পাশাপাশি তাদের পেমেন্ট মেথড সিস্টেমও ডিজিটাল পেমেন্ট মেথডে অর্ন্তভুক্ত।যদি আপনি নতুন ব্লগ পাবলিশার হয়ে থাকেন।তাহলে আপনি এই কোম্পানি থেকে এফিলিয়েট প্রোগ্রাম শুরু করে দিতে পারেন।

4. Click Bank

ক্লিকব্যাংক ১৯৯৮ সালে তারা তাদের অনলাইনে বিজনেস শুরু করেছিলো।এবং এখন পর্যন্ত তাদের সেই বিজনেস কন্টিনিউ আছে।অনেক পুরোনো হওয়াতে এখানে ৬ মিলিয়নের বেশি প্রডাক্ট রয়েছে।যা অন্যান্য অনলাইন ইকমার্স মার্কেটকে ছড়িয়ে যাওয়ার মতো।

আপনি ক্লিকব্যাংকের এফিলিয়েট প্রোগ্রাম থেকে যে পরিমান ইনকাম করতে পারবেন।আপনি চাইলে সেই টাকা সাপ্তাহিক কিংবা মাসিক সিস্টেমেও নিতে পারবেন।আর পেমেন্ট মেথড অন্যান্য অনলাইন মার্কেটের মতো এখানেও ডিজিটাল পেমেন্ট মেথড বিদ্যমান রয়েছে।

5. Bd Shop

নাম শুনেই অনুমান করতে পেরেছেন, এটি একটি বাংলাদেশি ই-কমার্স প্ল্যাটফর্ম।বিডিশপ বর্তমানে টেকনোলোজি রিলেটেড পন্যসামগ্রী কেনাকাটার জন্য উপযুক্ত প্ল্যাটফর্ম।আর আপনার বা আমার মতো ছোট-খাটো সব পাবলিশাররা খুব সহজেই বিডিশপের এফিলিয়েট প্রোগ্রামে জয়েন করতে পারবেন।

বাংলা ভাষায় যারা ব্লগিং করছেন, তাদের এফিলিয়েট মার্কেটিং করার জন্য বিডিশপের কোনো বিকল্প নেই।টেকনোলোজির ভ্যারাইটিজ পন্য যেমন, মাইক্রোফোন,হেডফোন, কম্পিউটার চেয়ার/টেবিল সহো অনেক পন্যের সমাহারে পরিপূর্ন।বিডিশপে এফিলিয়েট করতে সবচেয়ে বড় সুবিধা হলো, আপনি চাইলে এখান থেকে বিকাশ,রকেট এবং ব্যাংক একাউন্টের মাধ্যমে পেমেন্ট নিতে পারবেন।

কিছু কথা:

যদি আপনি একজন ভালো পাবলিশার হয়ে থাকেন।তাহলে গুগল এডসেন্স থেকেও খুব ভালো মানের ইনকাম করতে পারবেন।যদি তা আমার মনোমত না হয়, তাহলে তো গুগল এডসেন্স ছাড়াই ইনকাম করার সব পদ্ধতি সম্পর্কে জানতে পারলেন।


COMMENTS

Name

Android,3,Bangla Tech News,3,Blogger Templates,1,Blogging Tips,11,How to earn money,3,Technology Tips,18,
ltr
item
Toto Bangla: AdSense Alternative: গুগল এডসেন্স ছাড়াই ব্লগ থেকে ইনকাম করুন
AdSense Alternative: গুগল এডসেন্স ছাড়াই ব্লগ থেকে ইনকাম করুন
Google AdSense নেই? কিভাবে গুগল এডসেন্স ছাড়াই ইনকাম করবেন? আয় করতে পারবেন দুটি উপায়ে: ১. এড নেটওয়ার্ক ও ২. এফিলিয়েট করার মাধ্যমে।
https://1.bp.blogspot.com/-Gh5x_Bx5Xns/XadBnLDvCbI/AAAAAAAABKc/_yYgrW3RGPM7767WSmpuS1DFF9kXn3R6wCLcBGAsYHQ/s320/Adsense-alternative.jpg
https://1.bp.blogspot.com/-Gh5x_Bx5Xns/XadBnLDvCbI/AAAAAAAABKc/_yYgrW3RGPM7767WSmpuS1DFF9kXn3R6wCLcBGAsYHQ/s72-c/Adsense-alternative.jpg
Toto Bangla
https://www.totobangla.net/2019/10/adsense-alternative.html
https://www.totobangla.net/
https://www.totobangla.net/
https://www.totobangla.net/2019/10/adsense-alternative.html
true
2751192689318996488
UTF-8
Loaded All Posts Not found any posts VIEW ALL Readmore Reply Cancel reply Delete By Home PAGES POSTS View All RECOMMENDED FOR YOU LABEL ARCHIVE SEARCH ALL POSTS Not found any post match with your request Back Home Sunday Monday Tuesday Wednesday Thursday Friday Saturday Sun Mon Tue Wed Thu Fri Sat January February March April May June July August September October November December Jan Feb Mar Apr May Jun Jul Aug Sep Oct Nov Dec just now 1 minute ago $$1$$ minutes ago 1 hour ago $$1$$ hours ago Yesterday $$1$$ days ago $$1$$ weeks ago more than 5 weeks ago Followers Follow THIS PREMIUM CONTENT IS LOCKED STEP 1: Share to a social network STEP 2: Click the link on your social network Copy All Code Select All Code All codes were copied to your clipboard Can not copy the codes / texts, please press [CTRL]+[C] (or CMD+C with Mac) to copy