.breadcrumbs{display:none !important;}

Modern technology - আধুনিক প্রযুক্তির বিষ্ময়কর কিছু আবিস্কার

Modern Technology-আধুনিক প্রযুক্তি

@Modern Technology এখন আমাদের নিত্যদিনের সঙ্গী।সকালে ঘুম থেকে উঠার পর থেকে রাতে ঘুমানো পর্যন্ত।আমরা প্রতিনিয়ত কোনো না কোনোভাবে আধুনিক প্রযুক্তির ব্যবহার করে আসছি।তাই আধুনিক প্রযুক্তি সম্পর্কে আমাদের স্বল্প হলেও জ্ঞান থাকা আবশ্যক।

আমাদের কাছে থাকা প্রিয় মোবাইল ফোন থেকে শুরু করে আকাশে উড়ে বেড়ানো উড়োজাহাজ পর্যন্ত। সবখানেই আমাদের সাথে আধুনিক প্রযুক্তির একটা গভীর সম্পর্ক রয়েছে। এই প্রযুক্তি, শুধু যে আমাদের জীবনে সুফল বয়ে আনছে।সে ধারনা পুরোপুরি ঠিক নয়।

Modern Technology আমাদের সবার জীবনে যেমন সুফল বয়ে আনছে ।ঠিক তেমনি সুফল বয়ে আনার পাশাপাশি কিছু কিছু ক্ষেএে বেশ কুফল ও বয়ে আনছে আমাদের জীবনে।তবে সেদিকে আমরা তেমন একটা নজর দেই না।কারন মানুষ হিসেবে আমরা বড়ই আরামপ্রিয়।

যদিও আজ আমরা আধুনিক প্রযুক্তির কুফল সম্পর্কে জানবো না।তাই এই বিষয়টাকে এড়িয়ে যাওয়াই সবচেয়ে উচিত হবে বলে আমি মনে করি।

আমরা বর্তমানে যে প্রযুক্তিকে Modern Technology বলছি।সত্যি বলতে সেগুলো Modern Technology নয়।কি অবাক হলেন?

তাহলে বিষয়টা একটু বুঝিয়ে বলি। পুরাতন প্রযুক্তি আমাদের যা দিয়েছে।বর্তমানেও  ঠিক তেমনটাই আছে।তবে সেই পুরোনো প্রযুক্তিকে একটু ঘষামাজা করে নতুন আঙ্গিকে, গঠনগত কিছুটা পরিবর্তন।পূর্বের তুলনায় সেইসব প্রযুক্তিকে বেশি টেকসই,মজবুত আর নতুন ডিজাইন প্রদান করা হয়েছে মাএ। 

উদাহরন হিসেবে বলা যায়, মোবাইল ফোন তো ২০০০ সাল থেকেই অনেক মানুষ ব্যবহার করে আসছে।আর বর্তমানেও তো আমরা মোবাইল ফোন ব্যবহার করছি।তাই বলে কি আমরা পুরোনো প্রযুক্তিতে পড়ে আছি ?

-না ।কারন আমরা মোবাইল ব্যবহার করছি ঠিকই। তবে সেই আগের মতো পুরাতন মোবাইল ফোন গুলো নয়।বর্তমানে আরও কিছু ফিচার্ড এড করা এবং আরও উন্নতমানের ডিজাইনযুক্ত ফোন ব্যবহার করছি।

-ঠিক তেমনি আগে যেমন এক জায়গা থেকে অন্য জায়গাতে যাওয়ার জন্য বাষ্প চালিত ট্রেন ব্যবহার করা হতো।বর্তমানেও কিন্তুু যানবাহনের জন্য ট্রেন ব্যবহার করা হচ্ছে ঠিকই।তবে আগের মতো সেই বাষ্পচালিত ট্রেন নয়।বরং বর্তমানে বৈদ্যুতিক ট্রেনে যানবাহনকে সচল রাখা হয়েছে।

প্রযুক্তিবিদরা আমাদের জনপ্রিয়তা এবং চাহিদার উপর ভিওি করে।পুরাতন সেই প্রযুক্তিকে নতুনভাবে প্রদান করার চেষ্টা চালাচ্ছে অবিরত।যা আমরা আজকের দিনে ব্যবহার করছি।মূলত এসবকিছুই হলো আধুনিক প্রযুক্তি।
Modern technology
modern technology

What is Technology? প্রযুক্তি কি? 

সহজ কথায় বলতে গেলে আমাদের দৈনন্দিন জীবনে পূর্বের তুলনায় সহজ থেকে সহজতর করার জন্য যা কিছু আবিস্কার হয়েছে।বিজ্ঞানের অবদানে আমরা যেসব কিছু ব্যবহার করছি।তাকেই বলা হয় টেকনোলোজি।

যেমন, অনেক দূরে থাকা ব্যক্তির সাথে কথা বলার জন্য ”স্মার্টফোন”।দূরবর্তী লোকের সাথে তথ্য আদান-প্রদানের জন্য ”ফ্যাক্স/মেইল”।যানবাহনের জন্য বাস,ট্রেন,বিমান সহো আরও অনেক কিছু। যেগুলো আমরা দৈনন্দিন কাজে ব্যবহার করি।মূলত এগুলোই হলো বিজ্ঞানের অবদান।যা আমাদের জীবনকে পূর্বের তুলনায় অনেক সহজ করে দিয়েছে।

প্রযুক্তির সাথে যেমন আমাদের জীবনে নিবিড় সম্পর্ক রয়েছে।ঠিক তেমনি বিজ্ঞানের সাথেও প্রযুক্তির সম্পর্কটাও অতুলনীয়।কেননা, পুরাতন প্রযুক্তিই হোক কিংবা আধুনিক প্রযুক্তি।এ সবকিছুর পিছনে রয়েছে বিজ্ঞানের গুরুত্বপূর্ন অবদান।

বিজ্ঞানের এই অবদানের ফলে দীর্ঘদিনের কাজগুলো আমরা নিমিষেই করতে পারছি।মূহুর্তেই এক দেশ থেকে অন্য দেশের মানুষদের সাথে যোগযোগ অক্ষুন্ন রাখতে পারছি।এককথায় বলা যায়, আমাদের বর্তমান সময়ের পিছনে বিজ্ঞানের বিরাট হাত রয়েছে।

চলুন এবার জেনে নেয়া যাক, বিজ্ঞান আমাদের কোন কোন গুরুত্বপূর্ন প্রযুক্তি প্রদান করেছে।

Type Of modern Technology


  • যোগাযোগ প্রযুক্তি (Communication Technology)
  • নির্মান প্রযুক্তি (Construction Technology)
  • পন্য প্রযুক্তি (Product Technology)
  • চিকিৎসা প্রযুক্তি (Medical Technology)
  • আর্কিটেকচার প্রযুক্তি (Architecture Technology)
  • শিক্ষামূলক প্রযক্তি (Educational Technology)
  • তথ্য প্রযুক্তি (Information Technology)
  • মহাকাশ প্রযুক্তি (Space Technology)
  • রোবোটিক্স প্রযুক্তি (Robotics Technology)
  • কৃষি প্রযুক্তি (Agriculture Technology)

♜ যোগাযোগ প্রযুক্তি (Communication Technology) : প্রযুক্তির সবচেয়ে বড় অবদান হলো, যোগাযোগের মাধ্যম তৈরি করা। আমাদের প্রতিনিয়ত একজন অন্যজনের সাথে  যোগাযোগ করার প্রয়োজন হয়।প্রযুক্তির বদৌলতে তা আজ সফল হয়েছে।

এখন আমরা চাইলেই যে কোনো সময় যে কারো সাথে সহজেই যোগযোগ করতে পারছি। আমরা আমাদের আবেগ প্রকাশ থেকে শুরু করে বিভিন্ন তথ্য ভাগ করে নেয়ার জন্য সার্বক্ষনিক প্রযুক্তির সাথে ওতপ্রোত ভাবে জড়িত আছি।

আর সেজন্যই আমাদের দৈনন্দিন জীবনে।একের অধিকবার কোনো না কোনোভাবে দূর-দুরান্তে যোগযোগের জন্য। প্রযুক্তির ব্যবহার ছাড়া কল্পনা করতে পারছি না।আর সেই তাগিদে প্রযুক্তির অগ্রযাএার উন্নত করার প্রক্রিয়াও অব্যাহত রয়েছে।যেন আমাদের জীবন আগের তুলনায় আরও সহজ হয়।এবং আগের তুলনায় আরও স্বাচ্ছন্দ্যে ভোগ করতে পারি।

টেলিভিশন,রেডিও,মোবাইল,ইন্টারনেট হলো আধুনিক প্রযুক্তির যোগাযোগের জন্য সবচেয়ে বিরাট অবদান।

♜ নির্মান প্রযুক্তি (Construction Technology): আমাদের বসাবাসের জীবনকে সহজ করার জন্য যে প্রযুক্তির ব্যবহার করি।সেই প্রযুক্তিকেই বলা হয় নির্মান প্রযুক্তি।যেমন, নির্মান প্রযুক্তির প্রভাবে আমরা বহুতল ভবন নির্মান করতে সক্ষম হয়েছি।

শুধু বহুতল ভবন নির্মান নয়।আমাদে পারষ্পরিক যোগাযোগ ব্যবস্থা অক্ষুন্ন রাখার জন্য সেতু, দূর্ঘটনা এড়ানোর জন্য পুল,কালভার্ট নির্মান। এসবই হলো নির্মাণ প্রকল্পে Modern Technology র এক অপরিসীম অবদান।যে অবদান আমরা কোনোভাবে অস্বীকার করতে পারবো না।

♜ পন্য প্রযুক্তি (Product Technology): সাধারনত পন্য প্রযুক্তি বলতে, কোনো পন্যর উৎপাদন থেকে শুরু করে। সেই পন্যর পরিষেবা এবং বৈশিষ্ট নির্দিষ্টকরনের প্রক্রিয়াই হলো পন্য প্রযুক্তি। কোন পন্যর বৈশিষ্ট ছাড়াও ঐ পন্যর জনশক্তি,সঠিক মান সম্পর্কে জানার জন্য যে প্রযুক্তি ব্যবহার করা হয়।মূলত সেই প্রযুক্তিকেই পন্য প্রযুক্তি বলা হয়।

♜ চিকিৎসা প্রযুক্তি (Medical Technology): বর্তমান বিশ্বে প্রযুক্তির সবচেয়ে বিস্ময়কর এবং অতুলনীয় অবদান হলো, ”চিকিৎসা প্রযুক্তি”।যে প্রযুক্তির প্রয়োজন মানুষের আগেও ছিলো, বর্তমানেও আছে আর ভবিষ্যতেও থাকবে।

মানুষ তথা সমস্ত জীবদের স্বাস্থ্য,রোগ,সংক্রমন ইত্যাদি ক্ষেএে চিকিৎসা প্রযুক্তি যে কতটা গুরুত্বপূর্ন ভূমিকা পালন করে। তা আর বলার অপেক্ষা রাখে না। গোটা বিশ্বের সমস্ত উন্নত দেশগুলো, এ প্রযুক্তির প্রভাবে অনেক উপকৃত হয়েছে।ইদানিং উন্নয়নশীল দেশগুলোও  আধুনিক চিকিৎসা প্রযুক্তিতে বিনিয়োগ করার মনোভাব জাগ্রত করতে শুরু করছে।

যেকোনো কঠিন রোগ নিরাময়, রোগ নির্নয় এবং সেই রোগ থেকে দূরে থাকার জন্য চিকিৎসা প্রযুক্তির গুরুত্ব অপরিসীম।আর তাই বর্তমান সময়ে নতুন নতুন রোগ বাড়ার কারনে চিকিৎসা পদ্ধতিতেও এসেছে আধুনিকতার ছোঁয়া।

ওষুধের পাশাপাশি ব্যান্ডেজের মতো ছোট ছোট উদ্ভাবন থেকে শুরু করে। কৃএিম অঙ্গ-প্রত্যঙ্গের ও এমআর মেশিনের গুরুত্ব সত্যিই এক অবিশ্বাস্য প্রভাব ফেলেছে।

♜ আর্কিটেকচার টেকনোলোজি (Architecture Technology): বলা বাহূল্য যে, নির্মান প্রযুক্তির সাথে আর্কিটেকচার প্রযুক্তির গভীর একটা সম্পর্ক আছে।যখন কোনো বহুতল ভবন নির্মান করতে হয়।প্রথমে সেই ভবনের উপযুক্ত নকশা তৈরি করে নিতে হয়।কেননা, নির্মান কাজ করার আগে সেই নির্মানের নকশা প্রনয়ন করা বেশ গুরুত্বপূর্ন।

আর সেই নকশা করার কাজকে অনেকটাই সহজ করে দিয়েছে আর্কিটেকচার প্রযুক্তি।যার ফলে আমরা বর্তমানে নতুন নতুন ভবন নির্মানে সক্ষম হচ্ছি।

 শিক্ষাপ্রযুক্তি (Educational Technology): অন্যান্য প্রযুক্তির মতো ”শিক্ষাপ্রযুক্তি” একটি উপযুক্ত শিক্ষার পরিবেশ তৈরি করার পেছনে বিরাট অবদান রয়েছে। শিক্ষার কাজে ব্যবহার করা বিভিন্ন শিক্ষামূলক উপকরন থেকে শুরু করে শিক্ষকের পাঠদান থেকে শিক্ষার্থীদের পাঠ গ্রহন পর্যন্ত। সব ক্ষেএেই শিক্ষাপ্রযুক্তি এনেছে এক অভিনব পরিবর্তন।

এই পরিবর্তনের মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলো, ”মাল্টিমিডিয়া ক্লাশ”।বর্তমানে শিক্ষার্থীদের বোঝার সুবিধার্থে এবং সহজে মনে রাখার জন্য অনেক শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানেই ব্যবহার করা হচ্ছে মাল্টিমিডিয়া ক্লাশ।যা আমাদের বাংলাদেশেও ধীরে ধীরে মাল্টিমিডিয়া ক্লাশের আগ্রহ বেড়েই চলছে।

শুধু মাল্টিমিডিয়া ক্লাশ নয়।উন্নত প্রযুক্তির স্বার্থে শিক্ষার্থীদের গভীর জ্ঞান, কোনো বিষয়ে গবেষনা, মূল্যায়ন থেকে শুরু করে তাদের সমস্যা সমাধানে প্রক্রিয়াতেও শিক্ষাপ্রযুক্তির গুরুত্ব অপরিহার্য।

♜ তথ্য প্রযুক্তি (Information Technology): যেহুতু আমরা অবিরত Modern Technology ব্যবহার করে আসছি।সেহুতু তথ্য প্রযুক্তির ব্যবহার এবং প্রয়োজন সম্পর্কে আমাদের সবার জ্ঞান থাকা আবশ্যক।

সফটওয়্যার এবং হার্ডওয়্যার যা মূলত কোনো তথ্যকে স্থানান্তর,তথ্য জমা করা এবং প্রয়োজনের সময় সেই তথ্যগুলোকে ফিরে পাওয়া।এসব কিছু সম্ভব হয়েছে তথ্য প্রযুক্তির অবদানে।তাই অন্যান্য প্রযুক্তির মতো তথ্যপ্রযুক্তিও কোনো অংশে কম নয়।

যদি আপনার কোনো বড় ধরনের প্রতিষ্ঠান কিংবা বড় মাপের কোনো ব্যবসা থাকে।তাহলে আপনার কোনো তথ্য,ম্যানেজমেন্ট ইনফরমেশন,কর্মীদের পারফরম্যান্স সহো কোম্পানি পরিচালনা,সরন্জাম এবং প্রতিষ্ঠানের বিকাশে তথ্য প্রযুক্তির গুরুত্ব অপরিহার্য।

কারন তথ্যপ্রযুক্তি ব্যবহাররের ফলেই আপনি আপনার ব্যবসায়িক প্রক্রিয়াগুলো সহজ এবং নির্ভুলভাবে পরিচালনা করতে পারবেন।এতে করে আপনার গ্রাহক পরিষেবা বাড়বে এবং উচ্চমানের পন্য সরবরাহে বিরাট ভুমিকা পালন করবে।

♜ মহাকাশ প্রযুক্তি (Space Technology): মহাকাশ সম্পর্কে অনুসন্ধান তথা, গ্রহ,উপগ্রহ,নক্ষএ সম্পর্কে জ্ঞানপিপাসু ব্যক্তিদের জন্য আধুনিক বিজ্ঞান এক গুরুত্বপূর্ন অবদান রেখেছে।মহাকাশ সম্পর্কে সঠিক স্থান নির্নয়, সেই স্থান সম্পর্কে জ্ঞান অন্বেষন করার জন্য বিভিন্ন যন্ত্রের অবকাঠামোতে আধুনিক প্রযুক্তি কোনো কমতি রাখেনি।

স্যাটেলাইট,টেলিভিশন,জিপিএস,রিমোট সেন্সর,আবহাওয়ার পূর্বাভাস সহো দূরপাল্লার যোগযোগ অব্যহত রাখার কাজে।মহাকাশ প্রযুক্তির কোনো জুড়ি নেই।

♜ রোবোটিক্স প্রযুক্তি (Robotics Technology): কৃএিম বুদ্ধিমওা হলো রোবোটিক্স প্রযুক্তির টার্নিং পয়েন্ট।কারন কৃএিম বুদ্ধিমওার সাথে রোবোটিক্স প্রযুক্তির সম্পর্ক বরাবরের মতোই অটুট।

রোবোটিক্স প্রযুক্তি সম্পর্কে সাধারন ভাষায় বলতে গেলে, একটা মানুষ দৈনন্দিন যে কাজগুলো করে থাকে।সেই কাজগুলোই যদি কোনো মেশিনের সাহায্য করা হয়।সেই মেশিনকে বলা হয় রোবট।আর সেই রোবট ডিজাইন,নিমার্নে যে প্রযুক্তি ব্যবহার করা হয়।তাকে বলা হয় রোবোটিক্স প্রযুক্তি।

এই রোবোটিক্স প্রযুক্তির প্রভাবে একটা রোবটকে এতো সুক্ষভাবে তৈরি করা সম্ভব।যা একটা মানুষের সমস্ত কার্যকলাপ হুবহু কপি/নকল করতে পারে।মজা করে যদি বলি, বর্তমানে একজন মানুষের পরিবর্তে একটা রোবটকেও ব্যবহার করা সম্ভব।

♜ কৃষি প্রযুক্তি (Agriculture Technology): টেকনোলোজির অবদান কৃষি প্রযুক্তিতে যথেষ্ট ভূমিকা পালন করেছে।কৃষিকাজকে সহজ এবং কৃষকদের পরিশ্রম কমাতে Modern Technology দিয়েছে অনেক সরন্জাম।যা ব্যবহার করলে অনেক সময় ব্যয় এবং কষ্টের কাজগুলো খুবই সহজেই করা সম্ভব হচ্ছে।

পাওয়ার টিলার,ধান কাটার মেশিন, গম ভাঙ্গার মেশিন সহো উন্নতমানের কীটনাশক পর্যন্ত।এসব কিছুই হয়েছে কৃষি প্রযুক্তির অবদানে।যার দ্বরুন কৃষকদের পূর্বের ন্যায় হাড়ভাঙ্গা খাটুনিকে একটু হলেও হ্রাস পেয়েছে।

importance of information technology in modern world

আজকের এই আধুনিক দিনগুলোতে Modern Technology একটি বিরাট ভূমিকা পালন করছে।আপনি বা আমি না চাইলেও কোনো না কোনোভাবে আধুনিক প্রযুক্তির ব্যবহার পরিহার করতে পারবো না।

আজকের এই আধুনিক প্রযুক্তির কারনেই আমরা পুরো বিশ্ব সম্পর্কে খুব স্বল্প সময়েই জানতে পারছি।উন্নত দেশগুলোর মতো আজকের উন্নয়শীল দেশগুলোও তাদের অর্থনীতিতে ব্যাপক পরিবর্তন আনতে পারছে এই আধুনিক প্রযুক্তির মাধ্যমে।

এখন আমরা চাইলেই নিমিষেই এক জায়গা থেকে অন্য জায়গায় যেতে পারছি।ইন্টারনেট ব্যবহারের মাধ্যমে খুব দ্রুত এক দেশ থেকে অন্য দেশের মানুষদের সাথে কথা বলতে পারছি।আমাদের নিত্যপ্রয়োজনীয় তথ্য কিংবা ফাইলগুলো সহজেই  আদান-প্রদান করতে পারছি।

যেমন, সোস্যাল মিডিয়ার কথাই ধরুন।কত সহজে আপনি ফেসবুক কিংবা হোয়াটস এপে একজন আরেকজনের সাথে যোগযোগ করতে পারছি।মূলত আধুনিক প্রযুক্তি আমাদের পরিবারের সদস্যদের আরও ঘনিষ্ট করে তুলতে বেশ সহায়তা করছে।

Modern Technology আমাদের সঠিক সময়ে সঠিক কার্য সম্প্রদানে সূদুরপ্রসারী সহায়তা করতে পেরেছে।আর সেজন্য আধুনিক প্রযুক্তি আমাদের মানব জীবনের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ন।


এতক্ষনে আমরা  Technology কি এবং টেকনোলোজির অবদান সম্পর্কে জানলাম।তো চলুন এবার জেনে নেই আধুনিক প্রযুক্তির নতুন নতুন কিছু ডিভাইস সম্পর্কে।

new modern technology 

🎮 Tap Keyboard:: আমরা যারা কম্পিউটার ব্যবহার করি।তারা তো অবশ্যই কিবোর্ড আর মাউসের সাথে পরিচিত।আমাদের ব্যবহার করা কিবোর্ড আর মাউসের সাইজ যে কত বড়।সে বিষয়ে তো আপনাদের ধারনা আছে। অপরদিকে আপনি কোথায় ঘুরতে গেলে, কিবোর্ড আর মাউস নিয়ে যাওয়াটা অনেক বিরক্তকর।

আপনাদের এই কষ্টকে দুর করতে নতুন এক গ্যাজেট আসছে।যার ফলে আপনাকে আর কিবোর্ড এবং মাউস বহন করার কষ্ট আর করতে হবে না।এটা এমন একটি গ্যাজেড যা আপনি আপনার আঙ্গুলের সাহায্য ব্যবহার করতে পারবেন।

যে গ্যাজেটের মাধ্যমে আপনি কিবোর্ড এবং মাউস দুটোর কাজ একসাথে করতে পারবেন।কারন উক্ত গ্যাজেটে ফিঙ্গার সেন্সর লাগানো আছে।যা আপনার আঙ্গুলের নড়াচড়াকে বিশেষভাবে ফলো করে।

এই গ্যাজেটের মাধ্যমে আপনি আপনার মোবাইল,ট্যাবলেট,কম্পিউটার এবং ল্যাপটপে টাইপিং এর কাজেরও ব্যবহার করতে পারবেন।উক্ত গ্যাজেট গেম পাগলদের জন্য বেশ সুবিধা বয়ে আনবে।কারন একহাতের মাধ্যমেই আপনি কিবোর্ড আর মাউস দুটোর কাজেই একসাথে কন্ট্রোল করতে পারবেন।

🎮 Zackees: যদি আপনি রাইডিং প্রিয় মানুষ হোন।তাহলে আপনি জেনে থাকবেন যে, অনেক সময় রাস্তায় মোড় ঘুরতে হয়।সে সময় আপনি কি করেন?

-নিশ্চই হাত দেখিয়ে রাস্তার মোড় ঘোরেন।তাইনা?

কিন্তু আপনাকে আর সেরকম হাত দেখিয়ে বোঝাতে হবেনা যে, আপনি রাস্তার মোড় ঘুরবেন।কারন নতুন এক গ্যাজেটে এমন একটি গ্লোবস আবিস্কার করা হয়েছে।রাস্তার মোড় ঘুরার সময় আপনার হাত দেখানোর কাজটি আপনার গ্লোবস ই করে দিবে।

দুহাতে ব্যবহার করার জন্য দুটি গ্লোবস রয়েছে।যার মধ্যে এলইডি লাইট সংযুক্ত করা আছে।এই এলইডি লাইটগুলো এমনভাবে বানানো হয়েছে।যা আপনার চলাচলের সময় টার্নিং সিগন্যালের মতো কাজ করবে।

যখন রাস্তায় থাকা অবস্থায় যে পাশে ঘুরতে চান।সেই পাশের গ্লোবসের বাটন প্রেস করলেই এলইডি লাইটগুলো জ্বলে উঠবে।আর সেই জ্বলে ওঠা  আলো দেখা যাবে অনেকদুর থেকেই।কারন এইসব এলইডি লাইটে হাই ভ্যাজিবিলিটি ইলিমেন্ট সংযুক্ত করা আছে।

যার ফলে আপনি রাস্তায় ওয়াকিং করার সময় কিংবা রাইডিং করার সময় আপনার জন্য সেফটি গ্যাজেট হিসেবে কাজ করবে।জ্যামপূর্ন রাস্তায় এ গ্যাজেটটি আপনার বেশ কাজে আসবে।

🎮 Stop Sleep: অনেক দূরপাল্লায় ড্রাইভ করার সময় আমরা অনেক সময় ঘুমিয়ে পড়ি।যার ফলে রাস্তা-ঘাটে নানা প্রকার দূর্ঘটনা ঘটে।এক গবেষনায় দেখা গেছে, গাড়ির একসিডেন্ট বেশিরভাগ ড্রাইভ করার সময় ঘুমানোর কারনে হয়ে থাকে।

সাধারনত ড্রাইভিং করার সময় যখন আমাদের ঘুম পায়।ঘুমকে তাড়ানোর জন্য আমরা গান শুনি কিংবা কারও সাথে গল্প করি।কিন্তু দূরপাল্লার ভ্রমনে ড্রাইভিং করার সময়, এসবের কোনোটাই কাজে আসে না।তখন পড়ে যাই মহাসমস্যায়।কেননা, ড্রাইভের সময় হালকা হোক কিংবা ভারি।একটু ঘুমালেই যে কোনো সময় দূর্ঘটনা ঘটে যেতে পারে।

মূলত এই সমস্যাকে সমাধান করার জন্য আবিস্কার করা হয়েছে নতুন একটি গ্যাজেট।উক্ত গ্যাজেটটি দেখতে কিছুটা আংটির মতো।তাই উক্ত গ্যাজেটকেও আপনার আঙ্গুলে পড়তে হবে।

উক্ত গ্যাজেটে আট প্রকার বডি সেন্সর লাগানো আছে।যখন আপনি এই গ্যাজেটকে আঙ্গুলে পড়বেন।তখন উক্ত সেন্সরগুলো আপনার হার্টবিডের একটি ইলেকট্রিক ডায়াগ্রাম তৈরি করে।

অন্যান্য সময় এই গ্যাজেটটি নিরব থাকলেও।যখন আপনি ঘুমানোর চেষ্টা করবেন তখন আপনার হার্টবিডের ডায়াগ্রাম নিচে নামতে শুরু করবে।ঠিক তখনই উক্ত গ্যাজেটটি জোরে ভাইব্রেট করে উঠবে। কি মজার বিষয় না?

ভাইব্রেটরের ফলে আপনার সহজেই আপনার ঘুম ভেঙ্গে যাবে।আর আপনিও রক্ষা পাবেন রাস্তার বিভিন্ন দূর্ঘটনা থেকে।

এমন আরও অনেক মজার মজার গ্যাজেট আছে।যেগুলো নিয়ে পরবর্তী পোষ্টে আলোচনা করবো।চলুন এবার জেনে নেয়া যাক, পুরাতন টেকনোলোজি এবং নতুন টেকনোলোজির মধ্যে পার্থক্য কি কি।

old technology and new technology

প্রযুক্তিতে আবিস্কৃত কোনো কিছুই স্থায়ী না।প্রয়োজনের তাগিদে সবকিছুর নতুন সংস্করনের প্রয়োজন হয়।কিন্তু তাই বলে যে পুরাতন প্রযুক্তিকে আমরা পিছনে ফেলে আধুনিক প্রযুক্তিতে বসবাস করছি।সেটা সঠিক নয়।

যেমন, মোবাইল ফোন অনেক আগেই আবিস্কার হয়েছে।আমরা বর্তমানেও মোবাইল ফোন ব্যবহার করছি।তবে মোবাইল ফোন ব্যবহার করলেও সেই পুরাতন ফোনকে  ব্যবহার করছি না।আগের তুলনায় বেশিরভাগ টেকসই, মজবুত আরও কিছুটা নতুন সংস্করনে আসা ফোন গুলো ব্যবহার করছি।

আবার আগেও যেমন ট্রেন ছিলো।বর্তমানেও ট্রেন আছে।তবে আগের মতো বাষ্পে ব্যবহৃত ট্রেন নয়।বৈদ্যুতিক ট্রেন ব্যবহার করছি।

সেজন্য ওল্ড টেকনোলোজি থেকে নিউ টেকনোলজির পার্থক্য শুধু সংস্করনে।এর বাইরে তেমন কিছু নেই।

তো এখানেই শেষ।যেহুতু আমরা Modern Technology তে নিজেকে অভ্যস্ত করে ফেলেছি।তাই আধুনিক প্রযুক্তি সম্পর্কে আমাদের জানা উচিত।সেজন্য আজকের পোষ্টে সে বিষয় নিয়েই আলোচনা করালাম।

উপরে আলোচিত গ্যাজেটগুলোর কোনটি আপনাদের বেশি ভালো লেগেছে।সেটি কমেন্ট করে জানাবেন।পোষ্টটি যদি ভালো লাগে।তাহলে Technology পাগলদের সাথে অবশ্যই শেয়ার করবেন।  ধন্যবাদ।


New Post Older Post

Thanks For Read the Article