.breadcrumbs{display:none !important;}

Do not search in google.গুগলে এই জিনিসগুলো সার্চ করলে বিপদে পড়বেন।

4 Things you do not try to search in google.

গুগলের কাজ হলো,আপনি যা সার্চ করবেন।সেই তথ্যগুলো আপনাকে দেখানো।কিন্তু Google যা দেখাবে,তা যে সবকিছু সত্য।এমন নিশ্চয়তা কিন্তু গুগলও দেয়নি। আপনারা এই কথাটা অবশ্যই জেনে থাকবেন, “অল্পবিদ্যা ভয়ংকারী”। আর ঠিক এই জিনিসটাই তখন হয়।যখন কোনো গোপনীয় জিনিস,গুগলের কাছে জিজ্ঞাসা করা হয়।Vartual এই জগতের জন্ম হয়ত এই কয়েকদিন।কিন্তু এরই মধ্যে তা সংস্কারের কাজও শুরু হয়ে গেছে।গুগল সবসময় আপনার Search করা Keywords   এর দিকে একবারে কড়া নজর দিয়ে রেখেছে।বিশেষ করে সন্ত্রাসবাদ ও জঙ্গীদের কার্যকলাপ।এমন কিছু বিশেষ শব্দ আছে,যেগুলো আপনি ভুল করে সার্চ করলেও।আপনি মহা বিপদে পড়ে যাবেন। আজকে আমি আমার এই পোষ্টের মাধ্যমে আপনাদের জানাবো ,গুগলে কি কি সার্চ করা যাবেনা।মনে রাখবেন,এই ছোট্ট একটি ভুলের কারনেও আপনার কিন্তু জেলও হয়ে যেতে পারে।তাহলে চলুন দেখে আসি গুগলে কি কি Search না  করলেই ভালো।
do not search in google
do not search in google

১.যদি আপনি কোনো সন্ত্রাসবাদ এলাকায় বসবাস করেন।তাহলে সন্ত্রাসবাদ জাতীয় কোনো কিছু গুগলে Search করবেন না। অথবা আপনার বাড়ি যদি কোনো বর্ডারের পাশে হয়ে থাকে।বিশ্বের সব বড় বড় গোয়েন্দা সংস্থা এই সব এলাকার মানুষদের Search Keyword গুলোর উপর বেশ নজর দিয়ে রাখছে।ধরেন এমন হলো,কোনো সন্ত্রাস বড় ধরনের কোনো বিস্ফোরক চুরি করলো।আর ভুলবশত আপনিও সেই বিষয়ে কোনো কিছু Search করলেন।তাহলে কিন্তু আপনিও এই ধাঁধার জালে ফেঁসে যাবেন।যার পরিনাম অনেক খারাপ হতে পারে।তাই আমাদের পরামর্শ,সন্ত্রাসবাদ কিংবা বর্ডার এলাকার বসবাস করে থাকলে।এই জাতীয় কোনো কিছু গুগলে সার্চ না করাই ভালো।


২. বলা হয় ইন্টারনেটে যে অংশ আপনি আমি দেখে থাকি।তা খুবই ক্ষুদ্র একটি অংশ মাএ।ইন্টারনেটের অনেক বড় একটি অংশ মানুষের ধরা ছোঁয়ার বাইরে রয়ে গেছে।আর ইন্টারনেটের সেই অংশগুলোতে অনেক সংবেদনশীল বা অনেক গুরুত্বপূর্ন তথ্য রাখা হয়ে থাকে।সেই অংশকে Dark Web বলা হয়। আপনি জানলে অবাক হবেন যে,আমাদের দেশের মাএ ১ শতাংশ লোক ।ইন্টারনেটের সেই অংশে প্রবেশ করতে পারে।তবে আপনি যদি  Dark Web ব্রাইজ করার কথা চিন্তা করে থাকেন।তাহলে আপনাকে এ বিষয়ে কিছু কথা বলে দেই। ইন্টারনেটের অনেক অপরাধমূলক কাজগুলো এখানে করা হয়।ইন্টারনেটের এই অংশে ভাড়াটে কিলার পর্যন্ত পেয়ে যাবেন।অনলাইন শপ থেকে আপনি যেভাবে একটি জিনিস কিনেন।ঠিক সেভাবেই ডার্কওয়েবে আপনি অপরাধমূলক নানা রকম জিনিসপএ পেয়ে যাবেন।আপনি যদি ডার্কওয়েব সম্পর্কে জেনেও যান। কিন্তু মনে রাখবেন এখানে কিছু সার্চ বা ব্রাউজ করা থেকে দুরে থাকবেন।আর কখনই ইন্টারনেটে সার্চ করবেন না How to hire a contract killer । সত্যি কথা বলতে,আমাদের কিছু কিছূ কৌতুহল,অনেক সময় দমিয়ে রাখাই ভালো।


৩. আপনি কখনই আপনার ব্যক্তিগত সমস্যাগুলো গুগলে Search করবেন না।যদি আপনার কোনো গুগল সমস্যা থেকে থাকে।তাহলে Search করার আগেই কিছু Privacy Setting করে নিন।যদি আপনি Gmail ব্যবহার করেন,অথবা Social Media র কোনো প্রকার সার্ভিস।যেমন,Facebook,Twitter।তাহলে গুগলে আপনার ব্যক্তিগত কোনো তথ্য সার্চ করার আগে,প্রথমে সেই সব Social Account গুলো Log-Out করে নিন।তারপর আপনার ব্রাউজিংয়ের History ডিলেট করে দিন।তারপর Private Mode  ব্রাউজারে সার্চ করুন।কাজ হয়ে যাওয়ার পর আবারও সব হিস্টোরি ডিলেট করে দিন।হয়তবা আপনাদের মনে একটা প্রশ্ন  আসতে পারে।কেন আমি এমনটা বলছি? তাহলে একটু ক্লিয়ার করে দিচ্ছি। কয়েকদিন আগে ফেসবুকের সিও এবং গুগলে সিও,তাদের পক্ষে যক্তি দেখিয়েছেন।আপনারা হয়ত টেলিভিশন কিংবা পএ-পএিকায় পড়ে থাকবেন। এই ডিজিটাল কোম্পানি গুলো আপনার-আমার সার্চ করা বিষয়গুলো ট্রাক করা শুরু করেছিলো।কারন আপনার সার্চের কিওয়ার্ডের উপর ভিওি করে,আপনাকে বিভিন্ন পন্যর বিজ্ঞাপন দেখাবে।শুধু এতটুকুই নয়,আপনার সার্চ করা এই ডাটাগুলো অন্য এজেন্সির কাছে বিক্রিও করে দিতো।আর কোম্পানি গুলো সেই ডাটাগুলো কিনে এনালাইজ করতো।তারপর তাদের প্রোডাক্টের বিজ্ঞাপন প্রদান করতো।তবে এই ডাটাগুলোর অনেক ভয়াবহ ব্যবহার হতে পারে।এমনও হতে পারে,আপনি ব্যক্তিগতভাবে বড় ধরনের কোনো সমস্যাতে পড়েছেন। আর সেই বিষয় সম্পর্কে গুগলে সার্চ করছেন।আর তখন দেখা যাবে,গুগলে সার্চ করার পর আপনি এমন কোনো প্রোডাক্ট দেখতে পাচ্ছেন।যা আপনার সমস্যার সাথে সম্পর্কযুক্ত। এতে করে গুগল ও বিভিন্ন কোম্পানিগুলো তাদের ফায়দা লূটবে।অপরদিকে কোনো প্রকার সুবিধা দিবে না।তাই এইসব সার্চ আপনার নিজের মধ্যেই রাখা ভালো।ফেসবুক নিয়ে একটি কথা রয়েছে,গত অ্যামেরিকার নির্বাচনে সোস্যাল মিডিয়ার চালাকির কারনে।অ্যামেরিকার জনগন ট্রাম্পকে ভোট দিতে বাধ্য হয়েছে।এক্ষেএে সোস্যাল মিডিয়া মানুষদের সার্চ এবং ব্রাউজিং ডাটা একএিত করেছে। তাই যখন ব্যক্তিগত কোনো কিছু সবসময় আপনার প্রাইভেসি প্রাইভেট করার পর সার্চ করার চেষ্টা করবেন।


৪. সবশেষে আপনি যদি ভুল করেও চাইল্ড পর্ন দেখেন।তাহলে এর পরিনাম আমি আপনাদের বলে দিচ্ছি।তবে এতে আপনার জেলও হবে না। আপনার ক্ষতিও হবে না।আসল কথা ইন্টারনেটের এই অপরাধটা অনেকটা দীর্ঘ এবং দিন দিন আরও বেড়ে যাচ্ছে।আপনাদের কাছে আমার বিশেষ অনুরোধ,আপনারা যেখানেই এমন কন্টেন্ট দেখতে পাবেন।সেখান থেকে বের হয়ে যাবেন।যদি আপনি চাইল্ড পর্ন জাতীয় কোনো কিছু দেখতে থাকেন।তাহলে যারা এই জাতীয় অপরাধ করছে,তারা এই জঘন্য কাজটি করতে আরও আগ্রহী হবে।কারন আপনার আগ্রহ কিন্তু তাদের এইসব অপকর্ম করতে উৎসাহ দিচ্ছে।যারা এমন ধরনের অপরাধ করে।সেইসব ওয়েবসাইট কিংবা মানুষদের কখনই মেনে নিবেন না।তাই আপনাদের কাছে আমাদের বিশেষ অনুরোধ। কৌতুহলের বশেও এইসব ভিডিও দেখবেন না।

আমাদের এই ডিজিটাল পৃথিবী মাএ শুরু হয়েছে।এই পৃথিবীর কোনো আইন-কানুন এখনও সুনির্দিষ্ট নয়।তাই আপনাকে বুঝে শুনে ডিজিটাল এই জগতে চলতে হবে।এখানে চোর থাকবে,হ্যাকার থাকবে,এখানে ডাকাতও থাকবে।আবার জীবন দেয়ার জন্য ডাক্তারও থাকবে।তাই এই ডিজিটাল জগতে যাই করবেন,একটু ভেবে-চিন্তে,একটু দেখে-শুনে করবেন।

প্রিয় পাঠক,আশা করি এই পোষ্টটি আপনাদের ভালো লেগেছে।যদি ভালো লেগে থাকে,তাহলে পোষ্টটি শেয়ার করুন আপনাদের বন্ধুদের সাথে।আর কোনো কিছু জানাতে বা জানতে চাইলে আমাদের মেইল করুন।আমরা যথাসাধ্য চেষ্টা করবো আপনাদের দ্রুত ফিডব্যাক দেয়ার।দেখা হবে পবরর্তী পোষ্টে।সে পর্যন্ত ভালো থাকবেন।ধন্যবাদ।

New Post Older Post

Thanks For Read the Article